মুক্তা যেন জাকিরের আপনজন

0
108

বিরল রোগে আক্রান্ত সাতীরার শিশু মুক্তামনির চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের (ঢামেক) বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা: সামন্ত লাল সেন।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসেন কিছুদিনের মধ্যে বেশ কয়েকবার মেয়েটির খোঁজখবর নেন। তিনি নিজের ফেসবুক ওয়ালে ‘আসুন পাশে দাঁড়াই, আপনি-আমি চাইলে হয়তবা মেয়েটি সুস্থ জীবন ফিরে পাবে’ মন্তব্য লিখে নিউজটি শেয়ার করেন। সেটিতে ১৫ হাজার মানুষ লাইক এবং দুই হাজার ১শ মানুষ শেয়ার করেন। অনেকে সেখানে সহযোগিতার হাত বাড়ানোর আশ্বাস দিয়ে মন্তব্য করেন।

আজ বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় জাকির বার্ন ইউনিটের ৬০৮ নম্বর রুমে যান। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী’র দায়িত্ব নেয়ার কথা শুনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে বলেন, “মমতাময়ী নেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা মুক্তার চিকিৎসার সকল দায়িত্ব নিয়েছেন। ছোট বোন মুক্তার পাশে আছি আমরা সবাই। মুক্তা সুস্থ হয়ে আবারো তার বোন হিরার সাথে স্কুলে যাবে, মুক্তার জন্য সকলে দোয়া করবেন……….”

ডা: সামন্ত লাল সেন বলেন, মুক্তার চিকিৎসার দায়িত্ব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক ডা: জুলফিকার লেনিন আমাকে ফোন করে এ কথা জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেয়ার খবর শুনে মুক্তামনির বাবা মো: ইব্রাহীম হোসেন বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ। আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ। আপনারা আমার মেয়ের জন্য দোয়া করবেন।’

বিরল রোগে আক্রান্ত সাতীরার ১১ বছরের মুক্তামনিকে মঙ্গলবার ঢামেকের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। শিশুটির এক হাত ফুলে গিয়ে দেহের চেয়েও ভারী হয়ে গেছে। সাদা রঙের শত শত পোকা ঘুরে বেড়াচ্ছে সেই ফুলে যাওয়া অংশে। শরীরে অসহ্য ব্যথা ও যন্ত্রণায় মুক্তামনি বসতেও পারে না। খেলতে পারে না, স্কুলেও যেতে পারে না সে।

 

Facebook Comments