সাংসদ নিজেই চালিয়েছিলেন অ্যাম্বুলেন্সটি

0
182

সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৩০-৩২ জন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কাতরাচ্ছেন। গুরুতর আহত অনেককে নিতে হবে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এ জন্য দুটি অ্যাম্বুলেন্সও আছে। তবে চালক আছেন একজন। এমন সময় আহত ব্যক্তিদের দেখতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এলেন স্থানীয় সাংসদ। ঘটনা শুনে তিনি নিজেই একটি অ্যাম্বুলেন্সের চালকের আসনে বসলেন। গন্তব্যে পৌঁছে দিলেন রোগীদের।

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় গত বৃহস্পতিবার এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা প্রফুল্ল কুমার বলেন, হাসপাতালে আগে থেকে একটি অ্যাম্বুলেন্স ছিল। সম্প্রতি আরও একটি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সেটির জন্য কোনো চালক নেই। এমন পরিস্থিতিতে স্থানীয় সাংসদ আনোয়ারুল আজিম (আনার) নিজেই অ্যাম্বুলেন্স চালিয়ে রোগীদের যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবারের এক সড়ক দুর্ঘটনায় ৩০-৩২ জন আহত হন। তাঁদের প্রথমে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। খবর পেয়ে তাঁদের দেখতে সেখানে আসেন সাংসদ আনোয়ারুল আজিম। এসে জানতে পারেন, গুরুতর আহত অনেককে দ্রুত যশোরে নেওয়া দরকার। এ জন্য দুটি অ্যাম্বুলেন্স থাকলেও চালক আছেন একজন। এ কথা শুনে তিনি গ্যারেজে থাকা অ্যাম্বুলেন্স বের করে রোগীদের ওঠানোর নির্দেশ দেন। এরপর ছয়জন রোগী তুলে দেওয়া হয় ওই অ্যাম্বুলেন্সে। চালকের আসনে বসেন সাংসদ নিজেই। দ্রুত অ্যাম্বুলেন্সটি চালিয়ে যশোর নিয়ে যান তিনি।

স্থানীয় বাসিন্দা আমিরুল ইসলাম বলেন, দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তিদের মধ্যে তাঁর এক নিকটাত্মীয়ও রয়েছেন। খবর পেয়ে তিনি দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছুটে যান। সেখানে গিয়ে সাংসদের ওই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী হন। সাংসদ যে মহানুভবতা দেখিয়েছেন, তা অনুকরণযোগ্য।

Facebook Comments