তুরস্কে একে পার্টির নিরঙ্কুশ বিজয়

0
390

তুরস্কে গতকাল রোববার অনুষ্ঠিত পার্লামেন্টের মধ্যবর্তী নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগানের নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি (একে পার্টি) নিরঙ্কুশ বিজয় অর্জন করেছে। সর্বশেষ প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী পার্লামেন্টের ৫৫০টি আসনের মধ্যে দলটি পেয়েছে ৩১৬টি আসন। এককভাবে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজন ২৭৬টি আসন। নির্বাচনে ৮৭.২৬ শতাংশ ভোট পড়েছে। একে পার্টি ভোট পেয়েছে ৪৯ শতাংশের সামান্য বেশি। পার্লামেন্টে প্রতিনিধিত্বকারী অপর তিন দলের সম্মিলিত ভোটের চেয়েও বেশি ভোট তারা পেয়েছে।

তুরস্কে গত পাঁচ মাসের মধ্যে এটি দ্বিতীয় নির্বাচন। গত জুনে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে একেপি পেয়েছিল ২৫৮টি আসন (৪০.৮ ভাগ ভোট)। এককভাবে সরকার গঠনের মতো আসন না পাওয়ায় কোয়ালিশন সরকার গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়। কিন্তু তাতে সফলতা না আসায় প্রেসিডেন্ট মধ্যবর্তী নির্বাচন দেন।

গতকালের নির্বাচনে ১৬টি দল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছে। গত রাতে প্রাপ্ত সর্বশেষ খবর অনুযায়ী নির্বাচনে প্রদত্ত ভোটের মধ্যে ৮১.৩৭ শতাংশ ভোট গণনা করা হয়েছে। এর মধ্যে একেপি ৫০ শতাংশ ভোট পেয়ে ৩১০টি আসনে বিজয়ী হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে মধ্য বামপন্থী রিপাবলিকান পিপলস পার্টি (সিএইচপি)। দলটি ২৫.৩ শতাংশ ভোট পেয়ে ১৩৩টি আসনে বিজয়ী হয়েছে। কট্টর ডানপন্থী ন্যাশনালিস্ট অ্যাকশন পার্টি (এমএইচপি) ৪২টি আসন পেয়েছে। কুর্দিপন্থী পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টি (এইচডিপি) ৫৯টি আসন পেয়েছে। তবে তাদের ভোট অনেক কমে গেছে।
একে পার্টির প্রধান এবং প্রধানমন্ত্রী আহমদ ডাভুটুগ্লু এটাকে গণতন্ত্রের জয় হিসেবে অভিহিত করেছেন। তিনি সংবিধান সংশোধন করবেন বলেও জানিয়েছেন। এতে প্রেসিডেন্টকে আরো বেশি ক্ষমতা দেয়া হবে।

 

Facebook Comments