সোনালী সকালের প্রত্যাশায়

0
1871
সোনালী সকাল,ছবি,প্রতিকী

রুবায়েদ হাসান: প্রতিদিন সকালে দরজার নিচের ফাকা থেকে আসা,খবরের কাগজটা বরাবরের মতো মন খারাপের কারন হয়ে দাড়ায় । তাই আজ কাল সবাই গুরুত্বহীন হয়ে পড়েছি এসবের ব্যাপারে ।

মাতৃভূমির খবর নেওয়ার সময় নেই হাতে । মেয়েরা ফ্যাশনের,মায়েরা রান্নার রেসিপি,ছেলেরা খেলাধুলা,ছোটরা তাদের ছড়া,কবিতার পৃষ্ঠা নিয়ে যে যার মত ব্যাস্ত আজকাল।কারন একটাই দেশের অমানবিক পরিস্থিতি আজ আমাদের বাধ্য করছে নির্বোধ হতে ।বাধ্য করছে মনুষত্ব কে গলা টিপে হত্যা করতে ।

এখন প্রতি মুহুর্ত নিজের জীবনের বেঁচে থাকা নিয়ে আশংকা । ঘর থেকে বের হচ্ছি,ফিরবো তো ঘরে ? আমরা এই সমাজে বাস করি,যে সমাজে মায়ের পেটে থেকেও নিষ্পাপ শিশুটিও রেহায় পায় নি,সেখানে আমি,আমরা,তুমি,তোমরা কেন আতঙ্কিত থাকবো না, সত্যিই বড় আফসোস হয় ।এই সেই দেশ,যে দেশ  পৃথিবির বুকে শ্রেষ্ঠ দেশ হিসেবে বিবেচিত হয়েছিল টানা ৯ মাস মুক্তি যুদ্ধের কারণে ।

আজ আমরা সত্যি স্বাধীনতা লাভ করেছি,কিন্তু  সেই স্বাধীনতা দেশ ও দেশের মানুষের জন্য । মানুষকে গুম,খুন করে জ্বালিয়ে নির্যাতন করার জন্য নয়।

ভয় হয় সত্যি । মানুষ মরনশীল,কিন্তু এরকম বিভীষিকাময় মৃত্যু আমাদের কারোই কাম্য নয়।

রুবায়েদ হাসান: শিক্ষার্থী,জার্নালিজম,কমিউনিকেশন অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ,স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ ।

Facebook Comments