ঘাড়ের কালো দাগ দূর করার ঘরোয়া উপায়

0
351

আমরা সব সময়ই মুখের যত্ন নিয়ে থাকি। কখনো কখনো হাত ও পায়ের যত্নও নেই। কিন্তু সব সময়ই শরীরের যে জায়গাটি অবহেলিত থাকে সেটি হচ্ছে ঘাড় ও পিঠ।
আমরা আয়নায় নিজের মুখ দেখতে পাই এ কারণে মুখের যত্নটাই বেশি নেওয়া হয়। ঘাড় ও পিঠের খোলা অংশ আস্তে আস্তে মুখের তুলনায় কালো হয়ে যেতে থাকে এবং এক সময় এই রঙের পার্থক্য খুব বেশি চোখে পড়ে।
এই সমস্যা সমাধানে কিছু ঘরোয়া উপায় দেওয়া হল—

আমন্ড (কাঠ বাদাম)
ত্বকের যত্নে আমন্ডের কোনো তুলনা হয় না। এর বিভিন্ন উপাদান ত্বকের পুষ্টি যোগায় এবং ত্বকের রঙ হালকা করতে সাহায্য করে। আমন্ড ঘণ্টাখানেক ভিজিয়ে রেখে দিন। এবার এটি বেটে নিন। ১ চা-চামচ আমন্ড বাটা, ১ চা-চামচ গুঁড়ো দুধ এবং ১ চা-চামচ মধু ভালো করে মিশিয়ে ঘাড়ে লাগিয়ে রাখুন আধা ঘণ্টা। এরপর ধুয়ে ফেলুন। যদি আস্ত আমন্ড পাওয়া না যায় তবে আমন্ড পাউডারও ব্যবহার করতে পারেন। ভালো ফল পেতে চাইলে সপ্তাহে অন্তত তিনদিন এই প্যাকটি ব্যবহার করুন।

অ্যালোভেরা (ঘৃতকুমারী)
ত্বকের কালোভাব দূর করতে অ্যালোভেরার জুরি নেই। আপনি এটা সরাসরি লাগাতে পারেন। অ্যালোভেরার নির্যাস বের করে নিন এবং এটি সরাসরি আপনার ঘাড়ের ত্বকে লাগান। ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন এবং ধুয়ে ফেলুন। ভালো ফল পেতে প্রতিদিন একবার ব্যবহার করুন।

বেসন
বেসন, টকদই আর সামান্য মধু মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এটি ঘাড়ে লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর হাত দিয়ে ঘষে ঘষে তুলে ফেলুন। এবার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন পরিষ্কার দেখাচ্ছে।

আলুর রস
আলুতে আছে প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান। তাই আলুর রস ঘাড়ের কালো দাগ দূর করতে ভূমিকা রাখে। আলু কুচি অথবা আলুর রস ঘাড়ে লাগিয়ে রাখুন। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ঘাড়ের কালচেভাব দূর হয়ে যাবে।

শশা
ঘড়ের ত্বক পরিষ্কার করার অপর একটি কার্যকরী উপাদান হচ্ছে শশা। শশা পাতলা করে কেটে ঘাড়ে লাগিয়ে ম্যাসাজ করলে এক্সফলিয়েটের কাজ হয় এবং মরা চামড়া উঠে আসে। শশা থেতলে নিয়ে বা জুস করে নিয়ে ঘাড়ে লাগিয়ে কয়েক মিনিট ম্যাসাজ করে ২০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে নিলে ঘাড়ের কালো দাগ থেকে দ্রুত মুক্তি পাওয়া যাবে।

কমলার খোসা
কমলা খোসা চমৎকারভাবে ত্বক পরিষ্কার করতে পারে। কমলার খোসা শুকিয়ে ভালোভাবে গুড়ো করে নিয়ে এর সঙ্গে দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। কালো ঘাড় থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য মিশ্রণটি ঘাড়ে লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে দিন। তারপর ধুয়ে ফেলুন।

Facebook Comments